'পরীর অভিনয় দেখে আমি অবাক হয়েছি'

By: বাবু 2018-04-11 16:39:07 স্পেশাল

বিনোদন প্রতিবেদক:  অভিনেতা 'ফজলুর রহমান বাবু' যিনি ছোট পর্দা থেকে শুরু করে বড় পর্দা বেশ দামটের সাথেই অভিনয় করে জয় করে নিয়েছেন লাখো দর্শকদের হৃদয়। ছোট পর্দায় দেখিয়েছেন তিনি তার অভিনয়ের মুন্সিয়ানা। বাদ যায়নি বড় পর্দাও।  'মনপুরা', 'হালদা', 'অজ্ঞাতনামা' সহ বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রে তার অভিনয় শৈল্পী দিয়ে হয়েছেন বেশ প্রশংসিত। স্বীকৃতি সরূপ পেয়েছেন দুইবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার । সম্প্রতি তার অভিনীত 'স্বপ্নজাল' ছবিটি মুক্তি পেয়েছে। সদ্য মুক্তি পাওয়া ছবি নিয়ে  বাংলা প্রতিদিনের সাথে কথা হলো এই গুনী অভিনেতার।   

বাংলা প্রতিদিন:  স্বপ্নজাল নিয়ে  কিছু বলেন। 

ফজলুর রহমান: মনপুরা দিয়েই চলচ্চিত্রে আসেন নির্মাতা গিয়াসউদ্দিন সেলিম। মনপুরার পর তার  নামের সাথে একটি বিশেষণ যুক্ত হয়েছে তাহলো মনপুরা খ্যাত নির্মাতা। আমার যেমন গিয়াসউদ্দিন সেলিমের কাছে ভালো কিছু পাবার প্রতাশ্যা ছিলো ঠিক তেমনি দর্শকদের ছিলো। মনপুরা দিয়ে তিনি বাংলাচলচ্চিত্রে এক নতুন মাত্রা যোগ করেছিলো। দীর্ঘ নয় বছর পর সে 'স্বপ্নজাল' নির্মাণ করেছেন। আমার মনে হয় মনপুরা থেকে 'স্বপ্নজাল' অনেক ভালো হয়েছে। এক এক সময় বাস্তবতা এক এক রকম থাকে। মনপুরা যখন মুক্তি পেয়েছিলো তখন গান দিয়ে বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছিলো। তখন অনেক সিডির অডিও ভিডিওর দোকান ছিলো কিন্তু এখনকার  বাস্তবতা ভিন্ন। মানুষ এখন আর সিডি কিনে গান শুনেনা সবাই ইউটিউবে শোনে। তাই এবার এই ছবিতে তেমন গান রাখা হয়নি। কিন্তু সব কিছু মিলিয়ে আমার মনে হয়  প্রথম থেকে দ্বিতীয় ছবিটিতে আরো বেশী ভালো করেছে। মোট কথা তার গল্প বলার ঢং ছিল ভিন্ন। তার দিনের শেষে বাঙালি দর্শকরা গল্প দেখতে চায়।

বাংলা প্রতিদিন : অনেকেই বলছেন ছবিটি কি  দ্বিতীয় মনপুরা কিনা ? 

ফজলুর রহমান: নির্মাতার ভাষ্য দিয়েই বলতে চাই ' আমি আমার ছায়ায় হাটতে চাইনা'। একটা মানুষের তো অনেক লিমিটেশন থাকেই । আমি যতই নিজেকে ভাঙ্গার চেষ্টা করি না কেন দিন শেষে আমি সেই মানুষটি। কিন্তু আমার ছবিটি দেখে মনে হয়নি এটি মনপুরা টু। 

বাংলা প্রতিদিন : দর্শক হিসেবে কোন চরিত্রটি আপনার ভালো লেগেছে ?

ফজলুর রহমান: আমার কাছে প্রতিটি চরিত্র বেশ ভালো করেছে। বেশীও না কমো না। তবে হ্যা বিশেষ ভাবে যদি বলতে হয়ে আমি বলবো ছবির নায়ক রোহানের কথা। আমার জানা মতে এর আগে কোন ছবিতে কাজ করেনি পাশাপাশি তেমন নাটকেও অভিনয় করেনি। কিন্তু ছবিতে বেশ চরিত্রের কাছাকাছি ছিলো সে। মফস্বল শহরের এক জন ছেলে যেভাবে চলফেরা করে তার অন্যান্য কর্মকাণ্ড সব কিছুই চমৎকার ভাবে করেছে। আর পরীর কথা যদি বলতে হয় আমি বলবো ওর অভিনয় দেখে আমি অবাক হয়েছি। সাধারণত আমাদের কমার্শিয়াল ছবিগুলোতে নায়িকাদের মেকআপ, গেটআপ, অভিনয় সব মিলেয়ে অন্যরকম থাকে। কিন্তু পরীকে দেখে  আমার একবারের জন্যও মনে হয়নি সে এর আগে ১৫-১৬  মেইন স্টিম ছবিতে অভিনয় করেছে। সে যে চরিত্রটিতে অভিনয় করেছে তার নাম ছিলো শুভ্রা। ওকে দেখেই মনে হয়েছে আমাদের প্রতিবেশী কোন সুন্দরী মেয়ে। যেকিনা মফস্বলে থাকে। একটু গান করে, পড়াশোনা করে। পরীর মাঝে সেই চতিত্রটি বেশ ফুটে উঠে ছিল।

বাংলা প্রতিদিন :  সময় দেয়ার জন্য ধন্যবাদ আপনাকে। 

ফজলুর রহমান: আপনাকেও ধন্যবাদ