শুভ জন্মদিন অমিত হাসান

অমিত হাসান ঢালিউড আকাশের একটি তারার নাম । ‘নতুন মুখের সন্ধানে’ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ১৯৮৬ সালে তিনি চলচ্চিত্রে পা রাখেন। ১৯৯০ সালে মুক্তি পায় তার অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র ‘চেতনা’। একক নায়ক হিসেবে তিনি প্রথম অভিনয় করেন মনোয়ার খোকনের ‘জ্যোতি’ চলচ্চিত্রে। পরের গল্পটুকু সবারই জানা ।

সময়ের পরিক্রমায় অমিত হাসান নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় একজন অভিনেতা হিসেবে। নব্বই দশকে বেশ কিছু ব্যবসা সফল ছবির নায়ক তিনি। জুটি বেঁধে সফল হয়েছেন অরুণা বিশ্বাস, মৌসমুী, শাবনূর, পপিদের সঙ্গে ।

আজ ৯ সেপ্টেম্বর বাংলা সিনেমার এই উজ্জ্বল নক্ষেত্রের জন্মদিন । আর তার জন্মদিন কাটছে পরিবার নিয়ে ‘সিটি অব জয় ‘ কলকাতাতে । কাল সন্ধ্যায় ফিরবেন । ইতিমধ্যে যোগাযোগমাধ্যম গুলোতে তার ভক্ত, শুভকাঙ্খী,বন্ধুদের , শুভেচ্ছা বার্তায় ভাসছেন ।

অভিনয়ের পাশাপাশি একজন সংগঠক হিসেবেও অমিত হাসান সমাদৃত চলচ্চিত্রে। ২০১৫ সাল থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

২০০৮ সালে টেলিভিউ নামে প্রযোজনা সংস্থা চালু করে প্রযোজক হিসেবেও সফল হয়েছেন তিনি।

শেষ ঠিকানা’, ‘জিদ্দী’, ‘বিদ্রোহী প্রেমিক’, ‘তুমি শুধু তুমি’, ‘বাবা কেন চাকর’, ‘রঙিন উজান ভাটি’, ‘ভালবাসার ঘর’ ইত্যাদি চলচ্চিত্রে অভিনয় করে প্রসংশিত হন অমিত হাসান।

বর্তমানে ‘শাহেনশাহ’, ‘বয়ফ্রেন্ড’, ‘ও মাই লাভ’, ‘একটু প্রেম দরকার’, ‘মাই ডার্লিং’ ছবিগুলোতে কাজ করেছেন তিনি। সেগুলো মুক্তি পাবে চলতি বছরেই। এছাড়াও বেশ কয়েকটি ছবির কথা চলছে ।

সাম্প্রতিককালে অমিত হাসানকে দেখা যায় নেগেটিভ চরিত্রে। ভিলেন হিসেবেও তিনি পেয়েছেন আলাদা গ্রহণযোগ্যতা। অমিত হাসানের ভাষ্য, ‘নেগেটিভ চরিত্রগুলো আমি উপভোগ করি।’

(Aronno Shoeb)Entertainment Incharage