রফিক সিকদারের বিরুদ্ধে সুচরিতার অভিযোগ

বিনোদন প্রতিবেদক: জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্ত অভিনেত্রী সুচরিতা। আসল নাম বেবী হেলেন হলেও ঢাকাই চলচ্চিত্রে সুচরিতা নামেই পরিচিত। সুচরিতার অভিনয় জীবনের শুরুটা হয়েছিল শিশুশিল্পী হিসেবে। পরে বহু চলচ্চিত্রে নায়িকা হিসেবে অভিনয় করে পেয়েছেন আকাশচুম্বী জনপ্রিয়তা। ১৯৭২ সালে আজিজুর রহমান পরিচালিত ‘স্বীকৃতি’ ছবিতে প্রথম নায়িকা হিসেবে কাজ করেন। ১৯৭৭ সালে আবদুল লতিফ বাচ্চু পরিচালিত ‘জাদুর বাঁশি’ ছবিটি তাকে জনপ্রিয়তার শীর্ষে পৌঁছে দেয়। ইলিয়াস কাঞ্চন, ওয়াসিম এবং উজ্জলের সঙ্গে বেশ কিছু রোমান্টিক ছবিতে তার জুটি গড়ে ওঠে।

এদিকে আজ (১৪ জানুয়ারি) পরিচালক রফিক শিকদারের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিতে অভিযোগ করেন এ অভিনেত্রী। ‘বসন্ত বিকেল’ ছবিতে অভিনয় করার কথা ছিল এ অভিনেত্রীর। তবে তার সাথে পরিচালকের অসদাচরণ অভিযোগ করে শূটিং রেখে ঢাকায় চলে আসেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে সুচরিতার সাথে কথা হলে তিনি বলেন, ‘বসন্ত বিকেল’ ছবিতে অভিনয় করার কথা ছিল। রীতিমতো শূটিংয়ের জন্য পাবনা যাই। তবে পরিচালক রফিক শিকদার অসদাচরণ করায় শূটিং রেখে চলে আসতে বাধ্য হই। এর বেশি কিছু বলতে চাই না বাকিটা জানতে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাথে যোগাযোগ করুন।

এ প্রসঙ্গে শিল্পী সমিতির সাধারন সম্পাদক জায়েদ খানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ব্যাপারটি খুবই নিন্দনীয় ও দুঃখজনক। সুচরিতা বাংলাদেশের একজন কিংবদন্তী অভিনেত্রী। তিনি শিল্পী সমিতির আজীবন সদস্য। রফিক শিকদার একজন জুনিয়র পরিচালক হিসেবে কিভাবে এ রকম একজন সিনিয়ার শিল্পীর সাথে অসদাচরণ করার সাহস পায়? ভাবতেও অভাগ লাগে। আমরা সাংগঠনিক ভাবে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেব। আমরা এরইমধ্য লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। চিঠি পেয়েই পরিচালক সমিতিতে চিঠি দিয়েছি। তাদের ওপর শিল্পী সমিতির আস্থা আছে তারা এর সুস্থ একটি সমাধান দিবেন।

তিনি আরও বলেন, আজ ইসি কমিটির মিটিং ছিল সেখানে আমরা এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি। পরিচালক সমিতির সিদ্ধান্তর ওপর পরবর্তী পদক্ষেপ নেব। সিনিয়র অভিনেত্রী সুচরিতা’র সাথে অসদাচরণ করায়, পরবর্তী সিদ্ধান্ত না দেওয়া পর্যন্ত সমিতির সকল সদস্য কে পরিচালক রফিক সিকদারের যেকোনো শুটিং এবং ডাবিং থেকে বিরত থাকার জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে। আমার বিশ্বাস পরিচালক সমিতি কঠিন ও দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির ব্যবস্থা করবেন। এই পরিচালকের বিরুদ্ধে এর আগেও বিভিন্ন অভিযোগ উঠেছিল। আশা করি এবার রফিকের দৃষ্টান্ত বিচার হবে।

এ ব্যাপারে পরিচালক রফিক বলেন, শূটিং সেটে আমার ছোট ভাই যায় সেখানে সুচরিতা আপা আমার ভাইকে শুধু শুধু গালাগালি করে। আমি জানতে চাইলে তিনি আমাকেও গালাগালি করে। উভয়ের মধ্যে বাক-বিতণ্ডা হয়। তখন তিনি শূটিং রেখে চলে আসেন।