বাস্তবেও নায়ক আসিফ নূর 

  • শুধুমাত্র ভালোবাসা থেকেই রুপালি পর্দায় পা রেখেছিলেন আসিফ নূর। সেই ভালোবাসা থেকেই চলচ্চিত্রের অসহায় মানুষগুলোর পাশে দাঁড়ালেন। শুধু তাই নয় দাঁড়িয়েছেন অসহায় সকল মানুষ, সাংবাদিক এবং কোলাকুশীলির এর পাশে , নিজ এলাকায় দান করে যাচ্ছেন শত শত মানুষ কে , এ যেন সত্য জীবনের নায়ক এর গল্প !
  • তিনি হলেন আমাদের সবার প্রিয় আসিফ নূর ! পেশায় একজন ইঞ্জিনিয়ার হলেও , মনের টানে ছুটে এসেছিলেন রুপালি পর্দায় ! হাত ধরেছেন চলচিত্রের দূর দিন দূর করতে ! দিয়েছেন ব্যবসা সফল সিনেমাও ! এখন তিনি নিয়িমত ব্যস্ত তার ব্যবসা-বাণিজ্য নিয়ে , দ্বীন মোহাম্মদ গ্রুপ এর ম্যানিজিং ডিরেক্টর তিনি ।
  • পাশাপাশি গড়ে তুলেছেন দ্বীন মোহাম্মাদ ফাউন্ডেশন । মানবিক কাজ করে খানিকটা চুপি সারে ,তারই ধারাবাহিকতায় আজ প্রায় ১৫০ জন চলচ্চিত্রের সাথে জড়িত বিভিন্ন পেশার মানুষকে উপহার সামগ্রী বিতরণ করেন দীন মোহাম্মদ ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক এবং দীন মোহাম্মদ গ্রুপ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক, ইঞ্জিনিয়ার আসিফ মোহাম্মদ নূর , আমাদের রুপালি পর্দার একজন উজ্জ্বল নক্ষত্র !
    এই প্রসঙ্গে আসিফ নূর আমাদের বলেন ”
  • আমাদের দেশ তথা সারা বিশ্ব একটা অদৃশ্য শত্রুর সাথে যুদ্ধ করে যাচ্ছে। এই শত্রুর নাম করোনা ভাইরাস। এই করোনা ভাইরাসের যুদ্ধে সারা বিশ্বের মানুষ অংশ গ্রহণ করেছেন। সবাই এখন গৃহবন্দি। কেউ বের হতে পারছে না। তবে আমাদের সমাজে কিছু মানুষ আছে যারা চাইলেই গৃহবন্দি থাকতে পারছেন না। তারা দিন আনে দিন খায়। এই দুঃসময়ে অনেকেই তাদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে।
  • আমি চাই সবার জায়গা থেকে সবাই পাশে থাকুক। এই যুদ্ধে আমি দাড়াতে চাই বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশনের পাশে দাড়াতে চাই বিনোদন সাংবাদিকদের পাশে । সবার জায়গা থেকে একটু একটু করে এগিয়ে আসলে আমাদের সংকটময় অবস্থা কিছুটা উন্নত হবে আমি আশা করি।
  • তিনি আরো বলেন, আমার একটি ফাউন্ডেশন আছে তার মাধ্যমে নিম্নআয়ের মানুষের পাশে সামর্থ্য অনুযায়ী দাঁড়িয়েছি। তবে ত্রাণ বিতরণের নামে যদি জনসমাগম করি তাহলে উপকারের চেয়ে ক্ষতি হচ্ছে বেশি। প্রত্যেক কে সচেতনার সাথে ত্রাণ বিতরণ করতে হবে। সকল


    নিয়মকানুন মেনে চলতে হবে। সবাই এই যুদ্ধের সৈনিক। প্রত্যকে নিজ নিজ বাসায় অবস্থান করেই এই যুদ্ধ চালিয়ে যাবেন। সবাই সচেতন হয়েই সাহায্য করবেন। আমরা সবাই সরকারের দিক নির্দেশনা মেনে চলব। তাহলেই এই যুদ্ধে আমরা বিজয়ী হতে পারব। আর একটি কথা বলতে চাই যে, সকলের কাছে অনুরোধ আমরা যেন গুজব থেকে দূরে থাকি। এবং আমরা যখনই কোনো সংবাদ পড়ি তা যেন সঠিক বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ মাধ্যম থেকে পড়ি। ”