নতুন বিজ্ঞাপণে উদ্ভাসিত গাজী ফারুক

বিনোদন প্রতিবেদক : র্নিমাতা চিত্রনাট্যকার গাজী ফারুক মঞ্চ, বেতার, টিভি ও চলচ্চিত্রের একজন নিয়মিত অভিনেতাও বটে। এ সবের পাশাপাশি তাঁকে মাঝে মধ্যে বিজ্ঞাপণ চিত্রের মডেল হিসেবেও দেখা যায় ।গত ২৩ এপ্রিল থেকৈ তাঁকে বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে আনোয়ার সিমেন্ট শীট এর বিজ্ঞাপণে মডেল হিসেবে অভিনয় করতে দেখা যাচ্ছে । এ বিজ্ঞাপণ চিত্রটিতে তাঁকে আগের চেয়ে বেশ উদ্ভাসিত মনে হয়েছে ।

এটি নির্মাণ করেছেন প্রখ্যাত বিজ্ঞাপণ নির্মাতা তৌহিদ মিটুল ।প্রচারের দিন থেকেই তিনি দর্শক, নির্মাতা ও সোস্যাল মিডিয়ার বন্ধু শুভান্যুধায়ীদের প্রশংসা আর ভালোবাসায় সিক্ত হচ্ছেন এ মডেল।
গাজী ফারুক এ প্রসঙ্গে বলেন ‘নতুন বিজ্ঞাপণটিতে মডেল হিসেবে এতো প্রশংসা পাবো ভাবতে পারিনি ।যে কোন কাজের জন্য উৎসাহ, অনুপ্রেরণা কাজের প্রতি আরো দায়িত্বশীলতা বড়িয়ে দেয় ।এ কাজটির জন্য আমি এম এম কাষ্টিং এজেন্সী ও ফিল্ম শপের সকলের কাছে কৃতজ্ঞ’।

এর আগে গাজী ফারুক মঞ্জুর হোসেনের টাফি চকলেট, কাজী ইলিয়াস কল্লোলের কোকোলা ডায়াসল্ট বিস্কুট, রায়হান রাফি’র প্রাণ ফ্রুটো (কারার ঐ লৌহ কপাট)বিজ্ঞপণ চিত্রে মডেল হয়েছিলেন । এ ছাড়াও ১ রমজান থেকে বিভিন্ন এফ.এম রেডিওতে প্রচার হচ্ছে গাজী ফারুকের কন্ঠ দেয়া আর ডি সি- প্রাণ হালিম মিক্স মসলা ।

অন্যদিকে মুক্তির প্রতীক্ষায় রয়েছে গাজী ফারুক অভিনীত প্রায় একডজন চলচ্চিত্র । এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে সানী সানোয়ারের মিশন এক্সট্রিম, সাফিউদ্দিন সাফীর সিক্রেট এজেন্ট, ইস্পাহানী আরিফ জাহানের সরকারী অনুদানের চলচ্চিত্র হৃদিতা, ফয়সাল রদ্দি ও আসিফ ইসলামের যাযাবর, খ,ম, খুরশীদের বাংলার দর্পণ এবং শহীদুল হক খানের একজন ভাষা সৈনিকের গল্প । করোনা কাল স্বাভাবিক হলে নিজেই হাত দিবেন দুটি পূর্ণ দৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণে ।সব মিলিয়ে উদ্ভাসিত হয়ে উঠছেন নির্মাতা, চিত্রনাট্যকার ও অভিনেতা গাজী ফারুক।