চলচ্চিত্রর জন্য নাটক ছেড়েছি: অর্চিতা স্পর্শিয়া

রুহুল আমিন ভূঁইয়া

টিভি নাটকের ব্যস্তমুখ, বিজ্ঞাপনের এককালের সুহাসিনীর খেতাব পাওয়া এই অভিনেত্রী ক্রমেই ব্যস্ত হচ্ছেন রুপালি পর্দায়। যার প্রমাণ তার একের পর এক কাজ। প্রথমেই তিনি আলোচনায় আসেন তারিক আনাম খানের সঙ্গে অভিনয় করে ‘আবার বসন্ত’ চলচ্চিত্রটি দিয়ে। কোনো রকমের বিরতি না দিয়ে একের পর এক সিনেমায় কাজ করে যাচ্ছেন। তার প্রথম সিনেমা ‘বন্ধন’ এখনও মুক্তির অপেক্ষায়। এছাড়াও মুক্তির অপেক্ষায় আছে নুর এ আলম আতিকের ‘মানুষের বাগান’ চলচ্চিত্রটি। বলছি ছোটপর্দার অভিনেত্রী এখন রুপালি পর্দার নায়িকা অর্চিতা স্পর্শিয়ার কথা। সম্প্রতি প্রকাশ পেয়েছে অর্চিতা স্পর্শিয়া অভিনীত সিনেমা ‘কাঠবিড়ালী’র গান। গানের শিরোনাম ‘সুন্দরী কন্যা’। প্রয়াত নাট্যকার সেলিম আল দীনের কথায় গানটির সুর করেছেন ইউসুফ হাসান অর্ক এবং সংগীতায়োজন ইমন চৌধুরীর। যে গানে কণ্ঠ দিয়েছেন বাউল গানের জনপ্রিয় শিল্পী শফি মণ্ডল। আর এই গানের চিত্রায়নে দেখা গেছে চঞ্চল চপলা অর্চিতা স্পর্শিয়াকে। গানটি অনলাইনে মুক্তির পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে প্রশংসিত হচ্ছেন স্পর্শিয়া। গানটি প্রকাশের পর অনেক সাড়া পাচ্ছি। টিজার প্রকাশের পরও ভালো রেসপন্স পেয়েছি। সবাই গানটি পছন্দ করেছেন। ছবিতে তিনটি গান রয়েছে তবে এই গানটি ব্যক্তিগত আমার প্রিয়। -বললেন অর্চিতা স্পর্শিয়া।

যে গ্রামে শুটিং করা হয়েছে ছবির, সেই গ্রামেই ডিসেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত হলো ‘কাঠবিড়ালী’র প্রিমিয়ার শো’। সেখানেও অনেক রেসপন্স পেয়েছেন। অর্চিতা স্পর্শিয়া বলেন, বুঝতে পারিনি যে এত সাড়া পাবো। মনে হয়েছিল গ্রামের ছেলে বলে মানুষ ছবিটি দেখতে এসেছেন। কিন্তু না যারা এসেছেন সিনেমার প্রতি ভালবাসা থেকেই এসেছেন। ছবিটি দেখে তারা প্রসংশা করেছেন। গল্পটি সেই গ্রামের মানুষ জন পছন্দ করেছেন। ছবিতে কাজল চরিত্রে অভিনয় করেছেন স্পর্শিয়া। কলেজ পড়ুয়া গ্রামের স্বাধীন একটি মেয়ে। ছবির নায়ক হাসুকে ভালোবাসেন। তাদের প্রেম ঘিরে এগিয়ে যায় ছবির গল্প। বাকিটা জানার জন্য হলে গিয়ে ছবিটি দেখতে বললেন এই অভিনেত্রী। তিনি মনে করছেন সিনেমা হলে দর্শক মন্দায় ছবিটি প্রভাব বিস্তার ঘাটাতে পারবে। ছবিটি নিয়ে তার অনেক প্রত্যাশা।

অনেকেই বলে ছোটপর্দার অভিনয়শিল্পীরা বড়পর্দায় ভালো করতে পারে না। কারণ যাকে নিয়মিত টিভিতে দেখা যায় তাকে কেন টিকিট কেটে দেখতে হবে? এটি তাদের ভুল ধারণা। ছোটপর্দার শিল্পীও বড়পর্দায় সফলতা পেতে পারে। যার প্রমাণ ভুড়িভুড়ি রয়েছে। সিনেমার জন্যই নাটকে ছেড়ে দিয়েছি। কারণ নাটক এবং সিনেমা দুইটি পুরো ভিন্ন মাধ্যম। আমি সবসময়ই চেয়েছি যে কোনো একটি কাজ করতে। তাই যখন সিদ্ধান্ত নিয়েছি সিনেমা করবো তখন থেকে নাটক করা একেবারেই বাদ দিয়েছি। চলচ্চিত্রর জন্য তিন বছর হয়েছে নাটক ছেড়েছি। দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছি নাটক থেকে। নাটক ছেড়ে সিনেমায় কাজ করেও ভালো রেসপন্স পাচ্ছি। আর নাটকে ফেরার ইচ্ছে নেই। এখন থেকে চলচ্চিত্রে নিয়মিত কাজ করতে চাই।

তাসনিমুল তাজের চিত্রনাট্যে এবং নিয়ামুল মুক্তার পরিচালনায় ২০১৭ সালের ২ মার্চ শুরু হয় ‘কাঠবিড়ালী’ চলচ্চিত্রের শুটিং। ধাপে ধাপে চিত্রায়নের পর এবার মুক্তি পাচ্ছে কাঠবিড়ালী। আজ (১৭ জানুয়ারি) বড় পরিসরে ছবিটি দেশের ১৮টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে। এতে অর্চিতা স্পর্শিয়ার বিপরীতে অভিনয় করেছেন আবীর ও শাওন। কাঠবিড়ালী’র চিত্রগ্রহণ করেছেন আদিত্য মনির। অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন শাহরিয়ার ফেরদৌস সজিব, শিল্পী সরকার অপু, হিন্দোল রায়, এ কে আজাদ সেতু, তানজিনা রহমান। নিয়ামুল মুক্তার নিজস্ব প্রযোজনা সংস্থা ‘চিলেকোঠা ফিল্মস’ এর ব্যানারে নির্মিত ‘কাঠবিড়ালী’ পরিবেশনার দায়িত্বে আছে জাজ মাল্টিমিডিয়া।

এদিকে নির্মাতা নূরুল আলম আতিকের পরিচালনায় একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে কাজ করছেন অর্চিতা স্পর্শিয়া। ভালোবাসার গল্প নিয়ে তৈরি এর নাম ‘ডোনার’। এতে আসমা চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। তার সঙ্গে আছেন ইয়াশ রোহান। বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে হইচই’য়ে রিলিজ করা হবে। এর আগে নির্মাতা নুরুল আলম আতিকের ‘মানুষের বাগান’ নামে একটি সিনেমায় কাজ করেছেন অর্চিতা স্পর্শিয়া। সিনেমাটি মুক্তির অপেক্ষায়। এবং ফ্রেব্রুয়ারির শেষের দিকে নতুন ছবির শূটিং শুরু করবেন স্পর্শিয়া। তবে ছবিটি প্রসঙ্গে এখনই কিছু বলতে চান না।

সিনেমার জন্য ই-টিকিটিং প্রসঙ্গ টেনে এই অভিনেত্রী বলেন, সিনেমার জন্য ই-টিকিটিং খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তাহলে চুরিটা কম হবে। প্রযোজক তার টাকা ফেরত পেলে ফের লগ্নি করতে আগ্রহী হবেন। চলচ্চিত্রে কাজ করলেও চলচ্চিত্রে তার কোনো স্বপ্নের নায়ক নেই। ভালো গল্প ও চরিত্র পেলে সবার সাথে অভিনয় করতে চান। সবশেষে ছবিটি নিয়ে দর্শকদের উদ্দেশ্য স্পর্শিয়া বলেন, আমাদের ফিল্ম ইন্ড্রাস্ট্রির বর্তমান যে অবস্থা এ জায়গা থেকে ব্যক্তিগত ভাবে মনে হয় নতুন পরিচালক ও শিল্পীদের দর্শকদের গ্রহণ করা উচিত। সে ক্ষেত্রে নতুন পরিচালকরা ভালো কিছু কাজ উপহার দিতে পারবেন।