খলনায়ক কমল পাটেকারের ব্যস্ততা !

(অরণ্য শোয়েব)-: গল্পকে শ্বাসরুদ্ধকরভাবে এগিয়ে নেয়াসহ সিনেমায় গতি এনে দেয় একজন খল-অভিনেতা। দর্শকের কাছে গ্রহণযোগ্য সিনেমা তৈরিতে খলনায়কের ভূমিকা অনেক। তাই নায়কের চেয়ে খলনায়কের গুরুত্ব মোটেও কম নয়।

খলনায়কের কাজ হচ্ছে গল্পে ব্যঞ্জনা তৈরি করা। অভিনয়ের প্রয়োজনে এদের চলচ্চিত্রের পর্দায় বিচিত্র রূপ ধারণের পাশাপাশি কঠিন কঠিন কাজ করতে হয়। গোলাম মুস্তাফা, হুমায়ূন ফরিদি, রাজিব, এটিএম শামসুজ্জামান, আহমেদ শরীফ প্রমুখ খল অভিনেতারা পর্দা কাঁপিয়েছেন। পর্দায় তাদের উপস্থিতিই যেন দর্শককে কখনো চিন্তিত করে তুলতো আবার কখনো আশা ভঙ্গের কারণ হয়ে দাঁড়াতো। ঢাকাই চলচ্চিত্রে এখন তা সোনালী অতীত

বর্তমানে চলচ্চিত্রে খলনায়কের সংকট চলছে। সোনালী যুগের পর্দা কাঁপানো খলনায়কদের অনেকেই এখন চলচ্চিত্র থেকে দূরে রয়েছেন। এদিকে, নতুন করে যোগ্য খলনায়কের আবির্ভাব ঘটছে না।তবে পুরানো খল-নায়কদের মধ্যে বর্তমানে কমল পাটেকারের সরব উপস্থিতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে ।

১৯৮০ সালের দিকের কথা , এফডিসিতে তখন রমরমা সিনেমার ব্যবসা এবং সারা ফ্লোরজুড়ে তখন সিনেমার শুটিং হচ্ছে।এফডিসির সামনে অনেক লোকের সমাগম ,কেউ এসেছেন প্রিয় নায়ক-নায়িকাকে এক নজর দেখবে বলে বা অভিনেতা হওয়ার জন্যে। উৎসুক লোকের ভিড়ে একপ্রাণ বুকে স্বপ্ন নিয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছে এক যুবক। এফডিসির ভিতর থেকে ছুটে এসেছেন এক প্রোডাকশন ম্যানেজার ,কেন ? লোক লাগবে ! কিসের জন্য? শুটিংয়ে লাগবে। অনেক লোকের ভিড়ে সেই প্রাণবন্ত যুবকে এগিয়ে নিয়ে গেলো মিরপুর কিংবা সাভারে, জনপ্রিয় নির্মাতা দারাশিকো ‘র ছবি ‘ফকির মজনু শাহ ‘র শুটিংয়ের জন্য।এই ছোট গল্পটি সেই এফডিসির গেটে দাড়ানো যুবকটির যে’ কিনা আজকের জনপ্রিয় ভিলেন(খলভিনেতা) কমল পাটেকার এর যার ঝুলতে ঝুলছে হাজার ছবির নাম ।

খলভিনেতা কমল পাটেকার

খলভিনেতা কমল পাটেকার

কমল পাটেকার এখন পর্যন্ত প্রায় এক হাজারেরও বেশি ছবিতে অভিনয় করেছেন।এর মধ্যে প্রধান ভিলেন ,দ্বিতীয় ভিলেন রূপে প্রায় পঞ্চটির মত ছবিতে অভিনয় করেছেন।আশির দশক থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের সকল নায়ক-নায়িকা-ভিলেন এবং নির্মাতাদের সাথে কাজ করেছেন এই শক্তিমান ভিলেন।এছাড়াও কাজ করেছেন ওপার বাংলাতেও জয়দীপ মুখার্জি ,অভিমুন্য মুখার্জি ,রাজা চন্দ, রাজীবদের মত পরিচালকদের সাথে।

বর্তমানে ,কমল পাটেকার দুইছবির শুটিং নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন নাদের চৌধুরী পরিচালিত ‘জীন’এবং বদিউল আলম খোকন পরিচালিত ‘আগুন ‘ ছবি নিয়ে। এবং মুক্তির অপেক্ষায় আছে ‘একটু প্রেম দরকার ‘ শাহেনশাহ ‘ সহ বেশ কয়েকটি ছবি।

খলভিনেতা কমল পাটেকার

খলভিনেতা কমল পাটেকার

ব্যস্ততা নিয়ে বাংলাপ্রতিদিন ডটকমের সাথে কথা বলেন কমল পাটেকার তিনি জানান – দুই ছবি ছাড়াও বেশ কয়েকটি নতুন ছবির কথা চলছে। দুই-একদিন পরে কক্সবাজার যাবো আগুন এর শুটিং করতে,এরপরে ফিরে এসে নতুন কাজ শুরু করবো। দুটি ছবিতেই ভালো চরিত্র রূপান্তরিত হয়েছে।আশা করছি দর্শকদেরও ভালো লাগবে ছবিগুলো হলে দেখে ,তাদের বিচারের অপেক্ষায় থাকলাম।

কমল পাটেকার বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির তিনবারের নেতা ছিলেন।একবার দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক ও দুইবার ছিলেন কোষাদক্ষ্য।এমনকি তিনি ‘ভাই ভাই অ্যাকশন সঞ্চয় গোষ্ঠী ‘র সভাপতি ছিলেন।

এই ভিলেন বাংলাদেশে প্রথম ডিজিটাল ফরমেট ফিল্মের ফাইট ডিরেক্টর হিসেবে কাজ করেছেন।এবং আরো তিনটে ছবিতে তিনি ফাইট ডিরেক্টর ছিলেন।মূলত মোসলেম নামের একজন ফাইট ডিরেক্টর হাত ধরেই তিনি ফাইটার হিসেবে ছবিতে কাজ শুরু করেছিলেন। এরপরে তিনি চরিত্রভিনেতা হিসেবে পর্দায় ধরা দেন।

খলভিনেতা কমল পাটেকার

এক সময়ের জনপ্রিয় সিম কোম্পানি ওয়ারিদ (বর্তমানে এয়ারটেল )এর চারটি বিজ্ঞাপনে প্রধান চরিত্রে তিনি কাজ করেছেন। এবং একটি সিরিয়ালে ও সাতটি নাটকেও অভিনয় করেছেন এই ব্যস্ত ভিলেন।

উল্লেখ্য , হটলাইন ,দুই নাম্বার ,নেতা ,তুমি আমার প্রেম ,জন্ম তোমার জন্য ,বাধা ,অংক,লাভ ম্যারেজ ,নাকাব,নবাব ,নুরজাহান ,বেপরোয়া ,বিচার হবে ,মায়াবিনী ‘ছবিতে কমল পাটেকার এর অভিনয়ে প্রশংসিত হয়েছেন দর্শকদের কাছে ।